[:bn]রান্নাবান্না (পৌষ স্পেশাল) [:]

[:bn]রান্নাবান্না (পৌষ স্পেশাল) [:]

April 6, 2018

[:bn]

[সম্পাদকীয়তে এত পিঠে -পায়েসের কথা লিখলাম, আপনাদের খেতে ইচ্ছে করা স্বাভাবিক। কিন্তু রেসিপি হয়তো অনেকের ভালভাবে জানা নেই. আসলে বাড়িতে তো বিশেষ হয় না। পাটিসাপটা, সিদ্ধ পিঠে, পুলি পিঠে হয়ত জানেন কিন্তু এর বাইরে তো চিত্তহরণকারী অনেক সুস্বাদু পদ আছে যেগুলির প্রণালী একটু কম-জানা। সেগুলি জোগাড় করে আপনাদের সামনে হাজির করলাম। ট্রাই করে দেখুন শীতের দিন গুলো একদম জমে ক্ষীর হয়ে যাবে।]
লক্ষ্মী বিলাস

উপকরণ : ১ বড় কাপ বিউলির ডাল, ১ বড় কাপ আতপ চাল, খোয়া ক্ষীর, দুধ, পেস্তা, কিশমিশ, ভালো ছোট এলাচের গুঁড়ো ,পাটালি, সাদা তেল।
প্রণালী : বিউলির ডাল ও চাল ভিজিয়ে রাখতে হবে ৪-৫ ঘন্টা। তারপর জল ঝেড়ে মিহি করে বাটতে হবে। দুটো মিশিয়ে দিয়ে পরিমাণমতো দুধ দিতে হবে যাতে মিশ্রণটির ঘনত্ব এমন হয় যে চাটুতে পাটিসাপটা বা ধোসার মত ভাজা যায়।
খোয়া ক্ষীর, পরিমাণমতো পাটালি গুঁড়ো করা, পেস্তা কুচি, কিশমিশ ও এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে পুরটা রেডি রাখতে হবে। এবার ননস্টিক প্যানে ওয়াট অয়েল (ঘি
ব্যবহারও করতে পারেন) দিয়ে মিশ্রণটি ছড়িয়ে দিতে হবে বেগুনের বোটা দিয়ে। এইবার মাঝখানে পুর দিয়ে প্রথমে লম্বা করে, পড়ে পাশ দুটো মুড়ে দিয়ে একটি লবঙ্গ বিঁধে দিতে হবে যাতে আকারটা চৌক হয়। প্যানে অল্প তেল বা ঘি দিয়ে এপিঠ ওপিঠ ভেজে নিতে হবে যাতে হালকা সোনালি রং হয়। ভাজা হলে ঘন রসে (আগে থেকে তৈরি করে রাখতে হবে) ফেলে একটু পরে তুলে রাখতে হবে। আবার চাইলে রসে না দিয়ে, নলেন গুড় সহকারে, খেতে পারেন। রেডি হয়ে গেল সুস্বাদু লক্ষ্মী বিলাস।

 গোকুল পিঠে

উপকরণ : চালের গুঁড়ো ,ময়দা ,একটি নারকেল ,ছানা ,গুড়,চিনির ঘন রস ,সাদা তেল বা ঘি।
প্রণালী : ময়দা ও সমপরিমাণে চালগুঁড়ি ঘি -এর ময়ান দিয়ে ঘন দুধ দিয়ে মেখে গোল লেচি করে রাখতে হবে। পুরের জন্য নারকেল কোরা, খেজুর গুড়, কড়াতে পাক দিতে হবে। একটু পাক হলে বড় দু’চামচ ছানা ও বড় দু চামচ খোয়া ক্ষীর মিশিয়ে খুব ভালো করে নাড়তে হবে,যাতে তলায় ধরে না যায়। যখন নারকেল পাক কড়ার গা-এ আর লাগছে না ছেড়ে যাচ্ছে তখন বুঝতে হবে যে পুর তৈরি হয়ে গেছে। আগে গড়া লেচির মধ্যে এবার পুর ভরে সাদা তেলে সোনালি করে ভাজতে হবে। তারপর তেল ঝরিয়ে ঘন রসে ফেলতে হবে। তৈরি হয়ে গেল মা-দিদিমার রেসিপিতে করা গোকুল পিঠে।

হরমনমোহিনী

উপকরণ : দুই লিটার দুধ, ছানা ২৫০ গ্রাম, ক্ষীর ২৫০ গ্রাম , নারকেল একটি মাঝারী, সামান্য সুজি ,পরিমাণমতো খেজুর গুড়, ঘি, গোলাপজল।
প্রণালী : সুজি শুকনো কড়াতে নেড়ে নিতে হবে। সুজির প্রয়োজন শুধু বাঁধনের জন্য। নারকেল কুচি একদম মিহি করে পেস্ট করে নিতে হবে। এবার নারকেল, সুজি, ছানা, ক্ষীর মিশিয়ে কড়াতে নেড়ে নিতে হবে যাতে একদম পেস্ট তৈরি হয়। প্রয়োজনে হলে জল ছেটাতে পারেন। ঠান্ডা হলে হলে ছোট ছোট লেচি করে নিয়ে ঘিয়ে ভেজে তুলে রাখুন। ২ লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে ৫০০ মিলি আনতে হবে।খেজুর গুড় দেবেন ঘন দুধে পরিমাণমতো। গুড়ের পরিবর্তে চিনি ব্যবহার করতে পারেন। তবে মিষ্টি হবে একটু বেশি নাহলে স্বাদ পাবেন না।গোলাপজল ছড়িয়ে দিন। তারপর ভাজা লেচি গুলো ঘন দুধে ফেলে দিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন, ব্যাস রেডি আপনার হরমনমোহিনী। যেমন নাম, স্বদেও তেমন,খেলেই বুঝবেন।

[:]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Contact Us

(033) 23504294

rajika.mazumdar@gmail.com

21, Jhamapukur Lane, Kolkata - 700 009.

Book Shop

View All