[:bn]শীতে ত্বকের জৌলুস বজায় রাখতে হলে [:]

[:bn]শীতে ত্বকের জৌলুস বজায় রাখতে হলে [:]

March 29, 2018

[:bn]বরেন্যা বল্লভ।বয়স ৫২ বছর। শ্রীমণ্ডিত মুখ।আভিজ্যাতের ছাপ স্পষ্ট। গৌরবর্ণা। আয়ত দুটি চোখ। স্নিগ্ধ হাসি। এবং ব্যাক্তিত্বময়। নজরে পড়বেই ঠিক। জাগাবে সম্ভ্রম।

কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে মুখ নিয়ে চরম একটা অস্বাস্তিতে ভুগছেন বরেন্যা দেবী। সাবান মাখা নিয়মিত অভ্যাস। দু’বেলা সাবান মাখেন।পাউডারও দেন দিনে ২/৩ বার ত হবেই। এবং সুগন্ধি পাউডার। তবুও মুখের ত্বক তার স্বাভাবিক হারাচ্ছে, ত্বকের জৌলুস যেন দিন দিন বিদায় নিচ্ছে, ফিকে হয়ে যাচ্ছে। মুখের চেহারা কেমন মলিন হয়ে পড়ছে।

আরও কতগুলো অসুবিধে হচ্ছে। মনে হচ্ছে যেন মুখের ত্বক ক্রমশ শুকিয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে চামড়ায় টান ধরছে,সেটাও অস্বাস্তির অন্যতম কারণ। এবং যখন তখন মুখের ত্বক চুলকাতে ইচ্ছে করছে,তবে চুলকতে যে ভালো লাগছে তা নয়। চুলকাতে গিয়ে নখে লেগে ছোটখাট ক্ষতেরও সৃষ্টি হচ্ছে। তবে সংক্রমণ এখনো হয়নি। অবশ্য সক্রমন না হলেও ঠোঁট দু,এক জায়গায় ফাটতে শুরু করেছে। সমস্ত শরীরের বাঁধন এখনো তাঁর সম্পূর্ণ অটুট রয়েছে এই বয়সেও। কিন্তু কপালে বলিরেখা পড়েছে বলে মনে হচ্ছে। মুখের সেই ঔজ্জল্য নেই-রঙটা যেন কালো হয়ে গেছে আগের থেকে।

বিশেষভাবে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন বরেন্যা দেবী। তাঁর কি ত্বকের কোনো অসুখ হয়েছে? নাকি এই বয়সে এইরকম হয়? আরও অনেক মহিলা তো আছেন এই বয়সের –তাঁদের মুখে এই রকম তো এইরকম সমস্যা দেখা যায় না।

বরেন্যা দেবীকে অভয় দিলাম। তাঁর শরীরে বড় ধরনের কোন অসুখ নেই। নেই উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস বা থাইরয়েডের কোনো সমস্যা। মোটামুটি সুস্থ ও সুনিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রা নির্বাহ করেন।

তাহলে মুখের ত্বকের এই অসুবিধা কেন?

আমাদের শরীরে,বলা যেতে পারে,ত্বক হল সবথেকে সংবেদনশীল। সে তো অনাবৃত। প্রকৃতির,ঋতুর উপদ্রব তাকে বড় একটা কম সহ্য করতে হয় না। গরমে ঘেমে নেয়ে একসা হতে হয়, রোদে বেরুলে তাপ লাগে, বর্ষায় ত্বক ভিজে স্যাঁতস্যাঁতে হয়ে যেতে পারে, হতে পারে নানা ধরনের সংক্রমণ, শীতের শুষ্কতা ত্বকের জেল্লার অনেকখানি কমিয়ে দিতে পারে, তার জৌলুস দিতে পারে একেবারে নষ্ট করে।
শীতের শুষ্কতার প্রকোপে ত্বকের ওঁর ত্বকের এই অবস্থা হয়েছে, কোন সন্দেহ নেই।
তাঁর ত্বকের আগের কমনীয়, নমনীয়, উজ্জ্বল অবস্থা ফেরাতে খুব একটা যে কাঠখড় পোড়াতে হবে, অনেক কিছু ওষুধপত্রের দরকার হবে, খাবার বা সাধারণভাবে লাগাবার তাও নয়।
ত্বকের শুষ্কতা এড়াতে শীতের অনেক আগে থেকেই ত্বকের যত্ন নিতে শুরু করতে হবে।সেই যত্ন নেওয়া এমন কিছু কঠিন নয়।
প্রথমত মুখে সাবান লাগানো চলবে না। সাবানে ক্ষার থাকে। তার থেকে শুষ্কতা বেশি হতে পারে। তাই যাদের ত্বকের শুষ্কতা একটা সমস্যা, তাদের মুখে সাবান দেওয়াটা বন্ধই করতে হবে।
তাহলে কি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করা যাবে?
অনেক কিছু আছে। যেমন পাকা কলার খোসার ভেতরের দিকটা যেটা কলার সঙ্গে লেগে থাকে ঘষতে পারা যায় মুখে। রেখে দিতে হবে এক ঘন্টা। তারপর ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে মুখ অনেক পরিষ্কার হবে, মুখশ্রী উজ্জ্বল ও কমনীয় হবে।
এবং একটা হালকা ময়শ্চারাইজ দিনে দুবার লাগাতে হবে। যেমন হতে পারে ইউরিয়া ক্রিম। এতে কোনো ক্ষতি হবে না মুখের।কোন এলার্জি হবার সম্ভাবনাও নেই।
মুখে পাউডার দেওয়া চলবে না। কারণ পাউডার ত্বক শুষ্ক করে দেবে। ধুলো-ময়লা জমবে, ত্বক কালো হয়ে যাবে। অন্য কোন ক্রিম, ফেসওয়াশ বা তেল লাগাবেন না। এই সামান্য ব্যবস্থা গ্রহণেই বরেন্যা দেবীর মুখের ত্বক আবার তার জৌলুস ফিরে পেল।

                       ডাক্তারবাবু

 

 [:]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Contact Us

(033) 23504294

rajika.mazumdar@gmail.com

21, Jhamapukur Lane, Kolkata - 700 009.

Book Shop

View All